সর্বশেষ
Home / রাজধানী / হোল্ডিং ট্যাক্স, ভ্যাট ও কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

হোল্ডিং ট্যাক্স, ভ্যাট ও কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

dsc_0085 স্টাফ রিপোর্টাস: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, জনগণের দুঃখ দুর্দশা লাঘব করাই সরকারের দায়িত্ব। কিন্তু অযৌক্তিক করারোপ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করা কোন সরকারের কাজ হতে পারে না। তিনি বলেন, সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজনের বেতনভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সে বেতন বৃদ্ধির ভাতা জনগণের উপর চাপিয়ে দেয়ার অপরিনামদর্শি খেলায় মেতে উঠলে তার আখের ভাল হয় না। বর্তমান সরকার অযৌক্তিকভাবে হোল্ডিং ট্যাক্স, ভ্যাট ও কর বৃদ্ধি করে জনগণের উপর তা চাপিয়ে দিতে চাইলে জনগণ তার প্রতিবাদে রাজপথে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবে।
আজ শুক্রবার বাদ জুম’আ বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আয়োজিত বিক্ষোভ পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নগর সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা বাছির উদ্দিন মাহমুদ, মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর, অধ্যাপক ফজলুল হক মৃধা, ছাত্রনেতা এহতেশামুল হক পাঠান, শ্রমিকনেতা মুহাম্মদ শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।
মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, সরকার অযৌক্তিকভাবে প্যাকেজ ট্যাক্স চাপিয়ে দিয়ে ব্যবসায়ীদের সমস্যার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। জনগণের সমস্যা লাঘবে সরকার ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। জনগণের সমস্যা নিরসনে ব্যর্থ সরকারের পদত্যাগ করা উচিত। মাওলানা আহমদ আবদুল বলেন, ঈমান ও ইসলাম বিধ্বংসী সিলেবাস বাতিল করে নতুন সিলেবাস প্রণয়ন করতে হবে। পুরাতন সিলেবাসে বই বিতরণের যে কোন চক্রান্ত দেশপ্রেমিক ঈমানদার জনতা রুখে দাড়াতে বাধ্য হবে।
সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, অযৌক্তিকভাবে সরকারের হোল্ডিং ট্যাক্স, ভ্যাট, কর আরোপ করে তা আদায়ে দলীয় লোকজন নামিয়ে দিয়ে সরকার খারাপ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এভাবে সরকার দলীয় ক্যাডারদের দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দিচ্ছে। সরকারের রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তা, কর্মচারী রয়েছে, তাদের যোগ্যতার ঘাটতি থাকলে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে যোগ্য করে গড়ে তোলে তাদের দিয়েই রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালন করা উচিত। তা না করে সরকার যদি দলীয় ক্যাডারের মাধ্যমে জনগণকে হেনস্তা করে তাহলে রাষ্ট্রের জন্য তা ভাল ফল বয়ে আনবে না। এধরণের কর্মকান্ড থেকে সরকারকে সরে আসতে হবে। তিনি বলেন, অযৌক্তিক হোল্ডিং ট্যাক্স, কর ও ভ্যাট প্রত্যাহার করে জনদুর্ভোগ লাঘব করতে হবে। অন্যথায় জনগণের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেলে সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে নেমে আসতে বাধ্য হবে। কর্মসুচী : মায়ানমারে মুসলিম গণহত্যা বন্ধ, নির্বিচারে নারী ও শিশু হত্যা ও ধর্ষন বন্ধের দাবিতে ১৮ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে। পরে একটি বিশাল মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে হাউজবিল্ডিং চত্ত্বরে এসে সমাপ্ত করে।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

হারমোনিয়াম ও তবলা বিতরণের প্রতিবাদ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে রঙ্গশালা বানাবেন না: মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন মাধ্যমিক স্কুলে সরকারী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *