সর্বশেষ
Home / উপজেলার খবর / জীবন নগরে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের মাঝে পড়ে করিমন চালকসহ নিহত ২; আহত ১৬

জীবন নগরে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের মাঝে পড়ে করিমন চালকসহ নিহত ২; আহত ১৬

jibannagar-picরিফাত রহমান: জীবননগর উপজেলার মনোহরপুর পালপাড়ায় দ্রুতগামী দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের মাঝখানে পড়ে এক অজ্ঞাত (৪৫) করিমন চালক ও পূর্বাশা পরিবহনের হেলপার স্বপন (২৫) নিহত হয়েছে। ওই দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ১৭ জন তাদেরকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ লিয়াকত হোসেন প্রত্যক্ষদর্শীদের উদৃতি দিয়ে জানান, আজ শনিবার আনুমানিক সকাল পৌনে ১০টার দিকে বৃষ্টির মধ্যে ঢাকা থেকে জীবননগর হয়ে দর্শনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া পূর্বাশা পরিবহন (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-০৬১২) ও চুয়াডাঙ্গা থেকে যশোরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা শাপলা পরিবহন (ঝিনাইদহ জ-০৪-০০১০) জীবননগর উপজেলার মনোহরপুর পালপাড়ার কাছে পৌছুলে ওই দুটি দ্রুতগামী বাসের মাঝখানে একটি করিমন পড়ে গেলে দুটি বাস চালক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেললে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সংঘর্ষে অজ্ঞাত (৪৫) করিমন (স্যালো মেশিন চালিত) চালক ঘটনাস্থলেই ও ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার ফতেপুরের ওবাইদুরের ছেলে পূর্বাশা পরিবহনের হেলপার স্বপন (২৫) জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিহত হয়েছে।

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হওয়ার পর স্বপন নামে একজন মারা গেছে। আর সেখানে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন জীবননগর উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামের সহিদুল বিশ্বাসের ছেলে আনিসুর (৪০), ঝিনাইদহ জেলার কোর্টচাদপুর উপজেলার আব্দুস সাত্তারের ছেলে নাজমুল (২০), জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে আব্দুল কুদ্দুস (৫০), দামুড়হুদা উপজেলার জুড়ানপুর গ্রামের বিশারত আলীর ছেলে স্বপন (৩৫), চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার আমিনুল ইসলামের স্ত্রী জোসনা বেগম (৫০), মেহেরপুর জেলার বড় গাঙনী উপজেলার ঝন্টুর স্ত্রী শ্যামলী (২২) ও একই উপজেলার মাবুদের মেয়ে শাপলা (২৫), দামুড়হুদা উপজেলার কুড়–লগাছী গ্রামের সুলতানের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৪০), জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া গ্রামের মরহুম রমজান আলীর স্ত্রী রেবেকা খাতুন (৩০), জীবননগর উপজেলা সদরের মরহুম ইসাহাকের ছেলে খোকন (৪০), জীবননগর উপজেলার হরিপুর গ্রামের ওসমান গনির ছেলে আবুল কাশেম (৬৭) ও একই উপজেলার খয়েরহুদা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে আসাদুল হক (৩২)।

এছাড়া চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে সাবেক আন্দুলবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাখাওয়াত হোসেন (৪৮), একই গ্রামের মরহুম আব্দুল মজিদের ছেলে আনোয়ারুল কুদ্দুস (৫২) ও তার ছেলে সেলিম উদ্দিন (৩২), একই উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামের মহিউদ্দিনের ছেলে আনিসুর রহমান (৩৭)।

দুর্ঘটনার পর চুয়াডাঙ্গা-জীবননগর সড়কে প্রায় দেড় ঘন্টা যানবহন চলাচল বন্ধ ছিলো। দুর্ঘটনা কবলিত দুটি বাস ও করিমন সড়ক থেকে সরিয়ে নিয়ে এ সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে বলে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ লিয়াকত হোসেন জানান।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

জীবননগরে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মাসজিদে নামাজরত মুসুল্লিদের উপর খ্রিষ্টান জঙ্গির সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল

জীবননগরে সাধারণ জনতার বিক্ষোভ আজ আসরের নামাজের পর জীবননগর জমিয়তে মুসলিমীনের উদ্যোগে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মাসজিদে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *