সর্বশেষ
Home / Uncategorized / দামুড়হুদায় ক্ষেতের আখ খাওয়াই এক শিশুকে বেধড়ক মারধোর: আদালতে মামলা দায়ের

দামুড়হুদায় ক্ষেতের আখ খাওয়াই এক শিশুকে বেধড়ক মারধোর: আদালতে মামলা দায়ের

02222দামুড়হুদা প্রতিনিধি:দামুড়হুদা উপজেলার পুরাতন বাস্তুপুর গ্রামের এক শিশু দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র ইমরান (৮) মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে যাওয়ার সময় পথের ধারের একটি ক্ষেত থেকে আখ ভেঙ্গে খেতে থাকে। এই অপরাধে ক্ষেত মালিক একই গ্রামের মওলা মালিথা ও তার ছেলে নাহিদ মালিথা শিশুটিকে বেধড়ক মারধোর করতে থাকে। এসময় শিশুটির আতœ চিৎকারে ওই পথে নদীতে যাওয়া ও মাঠে থাকা লোকজন ছুটে এসে শিশুটিকে পাষন্ড ক্ষেত মালিকদের হাত থেকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। মারের চোটে শিশুটির সারা শরীর থেতলে যায় এবং পাসহ কয়েকটি স্থানে ফেটে রক্ত বেরুতে থাকে। এবিষয়ে শিশুটির দরিদ্র পিতা বাদী হয়ে আদালতে বৃহস্পতিবার একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত শিশুটির জবানবন্ধী শুনে সাথে সাথে মামলাটি নথি ভূক্ত করে নেন। মামলা দায়েরের পর থেকে নির্যাতিত শিশুটির দরিদ্র পরিবারটিকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে আসামী পক্ষের লোকজন।
মামলার এজাহার সূত্রে জানাযায়, উপজেলার পুরাতন বাস্তুপুর গ্রামের মালিথা পাড়ার দরিদ্র আব্দুর জব্বারের ছেলে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্র শিশু ইমরান (৮) গত ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার বেলা ৩ টার দিকে বাড়ির কাছে মাথাভাঙ্গা নদীতে গোসল করতে যায়। নদীতে যাওয়ার পথে শিশু ইমরান পথের ধারের একটি আখ ক্ষেত থেকে আখ ভেঙ্গে খেতে থাকে। এমন সময় ক্ষেতে আসা ক্ষেত মালিক একই গ্রামের একই পাড়ার খাদেম মালিথার ছেলে মওলা মালিথা (৫২) ও তার ছেলে নাহিদ মালিথা (১৮) শিশুটিকে আখ ভেঙ্গে খাওয়ার অপরাধে ধরে বেধড়ক মারধোর করে।
এসময় শিশুটির আতœ চিৎকারে ওই পথে নদীতে যাওয়া ও মাঠে থাকা লোকজন ছুটে এসে শিশুটিকে পাষন্ড ক্ষেত মালিকদের হাত থেকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। মারের চোটে শিশুটির সারা শরীর থেতলে যায় এবং পাসহ কয়েকটি স্থানে কেটে রক্ত বেরুতে থাকে। এবিষয়ে শিশুটির দরিদ্র পিতা বাদী হয়ে আদালতে বৃহস্পতিবার একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত শিশুটির জবানবন্ধী শুনে সাথে সাথে মামলাটি নথি ভূক্ত করে নেন। মামলা দায়েরের পর থেকে নির্যাতিত শিশুটির দরিদ্র পরিবারটিকে প্রতিনয়িত বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে আসামী পক্ষের লোকজন।
শনিবার সন্ধায় নির্যাতিত শিশুটিকে সাথে করে সাংবাদিকদের কাছে এসে শিশুটির পিতা মাতা বিস্তারিত জানিয়ে বলেন, আমার এই দুধের শিশুকে একটি আখ ভেঙ্গে অপরাধে কিভাবে মেরেছে আপনারা দেখেন। এব্যাপারে আমি কোর্টে মামলা করায় এখন প্রভাবশালী মওলা মালিথার লোকজন আমাকে ও আমার পরিবারকে মিথ্যে মামলায় জড়ানোসহ বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য।
উল্লেখ্য, বছর খানেক আগে একই পরিবারের লোকজনের অত্যাচার ও নির্যাতনের হাত থেকে বাচতে মওলা করিমের ছেলে আহসান (৩৮) তার পরিবার নিয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। ওই সময় এরা আহসানের স্ত্রী রহিমাকেও মারধোর করে। এই ঘটনায়ও আদালতে একটি মামলা চলছে।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

চুয়াডাঙ্গায় নানা আয়োজনে ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত (ভিডিও সহ )

  রিফাত রহমান: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি শরিফ হাসান দুদু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *