সর্বশেষ
Home / রাজনীতি / চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে সাথে নিয়ে দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন হাশেম রেজা

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে সাথে নিয়ে দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন হাশেম রেজা

আজাদ হোসেন: চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে সাথে নিয়ে উৎসব মূখর পরিবেশে দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন হাশেম রেজা। চুয়াডাঙ্গা-২ আসন থেকে আগত দলীয় নেতা-কর্মীদেরকে সাথে নিয়ে সোমবার সকাল ১০ টায় মতিঝিলের দৈনিক আমার সংবাদ অফিস থেকে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা সহকারে দলের সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডি অফিসে যেয়ে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে নিজ আসনের জন্য দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এ সময় উপস্থিত দলের নেতা-কর্মী ও দৈনিক আমার সংবাদের সকল সাংবাদিক, কর্মকর্তা কর্মচারীকে সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও সজিব ওয়াজেদ জয় ও প্রিয় নেতা হাশেম রেজার ছবি সম্বলিত ব্যনার-ফেষ্টুন-প্লাকার্ড নিয়ে নেচে গেয়ে মোটর সাইকেল, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ যোগে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের দলীয় মনোননয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির সহ-সম্পাদক গন-মানুষের নেতা হাশেম রেজা দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দেন।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক ড.আব্দুস সোবহান গোলাপ এ সময় মনোনয়ন পত্র গ্রহন করেন। জননেতা হাশেম রেজার মনোনয়ন পত্র জমাদানের শোভাযাত্রা চলাকালে ঢাকা শহরে একখন্ড চুয়াডাঙ্গার সৃষ্ঠি হয়। মতিঝিল থেকে বায়তুল মোকারম-পল্টন-প্রেসক্লাব-হাইকোর্টের সামনে দিয়ে দোয়েল চত্তর হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্য দিয়ে হাশেম রেজার মনোনয়ন পত্র জমাদানের শোভাযাত্রাটি দলীয় সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে পৌছায়। এ সময় পুরো সড়ক জুড়ে দু’পাশে অবস্থানরত মানুষ শোভাযাত্রাকে উৎসাহ প্রদান করেন।

জননেতা হাশেম রেজা গত শুক্রবার একই কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেন। সেখানে প্রবেশের পূর্বে দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্যেশ্যে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথীর বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের দলীয় মনোননয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির সহ-সম্পাদক গন-মানুষের নেতা হাশেম রেজা বলেন, “জেগেছে জনতা বেধেছে জোট এবার দেবে নৌকায় ভোট” আমরা সবাই ভোট চায় শেখ হাসিনার নৌকায়। নের্তৃত্বের দূর্বলতার কারনে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে যে হতাশা ও ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে সেটা থেকে পরিত্রান পেতে এলাকাবাসী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য পদে প্রার্থী পরিবর্তন চান।

আমি বিগত ৫ বছর চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের প্রতিটি পাড়া-মহল্লা, ওযার্ড-ইউনিয়ন-পৌরসভা সহ হাট-বাজার ও জনপদে গিয়েছি। মানুষের সাথে তাদের সমস্যা নিয়ে কথা বলেছি, সমাধান দেয়ার চেষ্টা করেছি।

সভা-সমাবেশ, জনসভা-গনসংযোগ, উঠান বৈঠক করেছি , উন্নয়ন বঞ্চিত মানুষের কথা শুনেছি। জনপ্রতিনিধি না হওয়ার পরেও মানুষের দুঃখ-দূর্দশার সমব্যথী হয়ে তাদের পাশে দাড়িয়েছি। সাধ্যমত সহায়তা করেছি। এলাকার স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদরাসা, মন্দির-গীর্জা, কবরস্থান সহ সবধরনের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে নিজ উদ্যোগে সহায়তা প্রদান করেছি অবলীলায়। অসুস্থ রোগীদেরকে নিজ খরচে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করি। এলাকার বন্ধ হয়ে যাওয়া খেলা ধুলাকে ক্রীড়াঙ্গনে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছি।

চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের হাতাশাগ্রস্থ অসুস্থ রাজনীতিকে সুস্থ ধারার রাজনৈতিক চর্চায় ফিরিয়ে দিয়ে পিছিয়ে পড়া এই জনপদে নব-জাগরনের সৃষ্ঠি করেছি। মানুষ এখন হাশেম রেজাকে নিয়ে একটি নতুন আগামীর স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে।

তিনি এ সময় আরও বলেন,আমি এলাকার মানুষকে জাগিয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি, আমার এলাকায় নৌকার ভোট-ব্যংক তৈরী করেছি। আমি তরুন ও যুব সমাজের প্রতিনিধি হিসাবে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী গনতন্ত্রের মাতা জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে জাতীয় সংসদ সদস্য পদে মনোনয়ন চায়। তিনি যদি যোগ্য মনে করে আমাকে দলীয় মনোনয়ন প্রদান করেন তাহলে আমি তার রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে দাড়িয়ে ঘোষনা দিয়ে যাচ্ছি আমি কমপক্ষে ১ লক্ষ ভোটে বিজয় লাভ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনকে তুলে দিয়ে যাবো ইনশাআল্লাহ। আমরা সবাই ভোট চায় শেখ হাসিনার নৌকায়, নৌকা যার আমি তার এই শ্লোগান দিয়ে জননেতা হাশেম রেজা তার বক্তব্য শেষ করেন।

জননেতা হাশেম রেজার মনোনয়ন পত্র জমাদানের শোভাযাত্রায় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়,চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক বর্ষিয়ান আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল কাদের সর্দার, জীবননগর উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো.নিজাম উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম বিডিআর, দামুড়হুদার হাউলী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হক মন্ডল, দামুড়হুদার নতিপোতা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতা মোহাম্মদ আলী,দামুড়হুদা সদর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাবুদ মেম্বর, সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবুল হাশেম, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের বিপ্লবী যুগ্ন-আহ্বায়ক এসএম মহাসিন আলী, হাবিবুর রহমান হাবিব,জাহাঙ্গীর আলম , হাসান মেম্বর, জুড়ানপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বর আইনউদ্দীন । জীবননগর উপজেলার উথলী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতা সরফরাজ উদ্দীন, যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শরীফুল ইসলাম মিন্টু, জীবননগর পৌর আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক আপেল মাহমুদ, আন্দুল বাড়িয়ার যুবলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম ও রায়পুরের যুবলীগ নেতা শাহবুদ্দীন খান, জীবননগরের যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম, ডা. তারিক, মাসুম বিল্লাহ, সবুজ,সীমান্ত ইউনিয়ন যুুবলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম, রায়পুরের বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী, আশরাফুল ইসলাম সহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

চুয়াডাঙ্গায় এডাব আয়োজনে সম-নাগরিকত্ব শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

রিফাত রহমান :বাংলাদেশে কর্মরত বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সমুহের সমন্বয়কারী প্রতিষ্ঠান এডাব চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার আয়োজনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *