সর্বশেষ
Home / বিশেষ সংবাদ / চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার বরণ ও বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার বরণ ও বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার : চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফকে বরণ ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরজাহান খানমের বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনায় সভায় নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফ ও বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরজাহান খানম, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জসিম উদদীন, জেলা পরিষদ সদস্য শহিদুল ইসলাম শাহান ও নুরুন্নাহার কাকলি, আইন উপদেষ্টা অ্যাড. শফিকুল ইসলাম, জেলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি চিৎলা ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান, সহকারি প্রকৌশলী সামাদুল ইসলাম, ইসরাইল হোসেন ও শহিদুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা রমজান আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন তেলওয়াত করেন জেলা পরিষদ মসজিদের ইমাম বায়েজিদ হোসেন। অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খোন্দকার ফরহাদ আহমদ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জেলা পরিষদের সদস্য মাফলুকাতুর রহমান সাজু।

বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরজাহান খানমকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জেলা পরিষদ সদস্য কাজল রেখা। এসময় নবাগত কর্মকর্তা ও বিদায়ী কর্মকর্তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানায় জেলা কৃষক লীগ ও সদর উপজেলা কৃষক লীগ। অনুষ্ঠানে জেলা কৃষক লীগের সহ সভাপতি তৌহিদুর রহমান চন্দন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকারিয়া আলম, প্রচার সম্পাদক মহসিন আলী ও সহদপ্তর সম্পাদক কামরুল ইসলাম, সদর থানা কৃষক লীগের আহবায়ক আব্দুল মতিন দুদু, যুগ্ম আহবায়ক ইলতুৎ হোসেন আলো ও শংকরচন্দ্র ইউপি সাংগঠনিক সম্পাদক আজমিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন বলেন, সরকারি চাকুরীতে একজন কর্মকর্তা চলে যাবেন, একজন নতুন আসবেন। এটাই সিস্টেম। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এসেছেন, পরিষদের দায়িত্ব হবে তাকে সহযোগিতা করা । যদি দৃশ্যমান কিছু তৈরী করে যেতে পারি। বহুতল মার্কেট তৈরী করার পরিকল্পনা রয়েছে। বিদায়ী কর্মকর্তাকে মনের অন্ত:স্থল থেকে দোয়া রইল।তিনি যেন সন্তান-পরিজন নিয়ে সুস্থভাবে আগামী দিনগুলো কাটাতে পারেন এবং চাকুরীতে উচ্চ পদে গিয়ে দেশের সেবা করতে পারেন।

নবাগত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল আরিফ বলেন, সরকারি আইন নীতি মেনে চলবো। জবাবগিহিতা নিশ্চিত করা যায় সেটাই চেষ্টা থাকবে। জনপ্রতিনিধি না থাকায় মানুষ জেরা পরিষদ চিনতো না। এখন জেলা পরিষদের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা রয়েছেন। ২/১টা দৃষ্টি নন্দন জিনিষ করেবো যা দীর্ঘদিন থাকবে।

বিদায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরজাহান খানম বলেন, সরকারি চাকরীতে বদলী থাকবেই। তবে, স্বামী-স্ত্রী দুজনেই সরকারি চাকরীজীবী হওয়ায় একত্রে বদলী হয়ে ঢাকায় যাওয়া ব্যতিক্রম । আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আপনাদের জন্য দোয়া রইল ।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

ভোটারহীন নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচন ব্যবস্থার কবর রচিত হয়েছে: পীর সাহেব চরমোনাই

ইসলামী অন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই) বলেন, ভোটার ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *