সর্বশেষ
Home / অপরাধ-দুর্নীতি / গাংনীতে ভালবাসার টানে স্বামীর ঘরছেড়ে রাতের আঁধারে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়ীতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত বেরসিক জনতার হাতে আটক

গাংনীতে ভালবাসার টানে স্বামীর ঘরছেড়ে রাতের আঁধারে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়ীতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত বেরসিক জনতার হাতে আটক

মেহেরপুর প্রতিনিধিঃ গাংনীতে ভালবাসার টানে রাতের আঁধারে স্বামীর ঘর ছেড়ে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়ীতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার সময় বেরসিক জনতার হাতে গৃহবধূ আটক হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়েছ্।

জানা গেছে গাংনী উপজেলার সানঘাট স্কুল পাড়া গ্রামের দীনমজুর ইখলাস হোসেনের স্ত্রী এক সন্তানের জননী চন্দনা খাতুন (২৫) একই পাড়ার মুদি ব্যবসায়ী মোকাম আলীর ছেলে লম্পট ওসমান আলীর সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

 

গত রবিবার দিবাগত রাতে লম্পট ওসমান মোবাইল ফোনে চন্দনাকে বাড়ীতে ডেকে নেয়। এসময় তাদের দুজনের চলাফেরাতে সন্দেহ হলে প্রতিবেশী বেরসিক জনতারা অপেক্ষা করতে থাকে। একপর্যায়ে তারা অবৈধ কাজে লিপ্ত থাকাবস্থায় দুজনকে হাতে-নাতে ধরে ফেলে।

 

সোমবার সকালে খবর পেয়ে সানঘাটের সিরাজুল ইসলামের বাড়ীতে গেলে ঘটনার সত্যতা মিলে এবং স্বামী ইখলাস হোসেন কর্তৃক বিতাড়িত স্ত্রী চন্দনার খোঁজ মিলে।

এব্যাপারে লম্পট ওসমান আলীর বাড়ীতে ঘটনার সত্যতা জানতে গেলে ওসমান আলীর চাচাতো বোন প্রবাসীর স্ত্রী তানিয়া খাতুন কাউকে বাড়ীতে প্রবেশ করতে দেয়নি। এমনকি প্রতিবেশীদের কাউকে কিছু বলতে নিষেধ করেছে। ওসমান সামাজিক বিচারের কথা শুনে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়।

 

স্থানীয়রা জানান,দীনমজুরের স্ত্রী চন্দনা খাতুন ওসমানের দোকানে মুদি মালামাল কিনতে গেলে ওসমান পরকীয়া প্রেমের ফাঁদে জড়িয়ে ফেলে। তানিয়া নামের মেয়েটাই সব কিছুর মূল। তার ভাইয়ের সাথে চন্দনার অবৈধ মেলামেশার সুযোগটা সেই করে দিয়েছে।

 

ওসমানেরও স্ত্রী রয়েছে। আরও জানা গেছে, লম্পট ওসমানের লাম্পট্যের কারণে একই পাড়ার একটি মেয়ে ধর্ষিতার অপবাদ নিয়ে মারা যায়। এতে ওসমান সামাজিক বিচারে ১৮ কাঠা জমি দিয়ে আপোষ করে। সে বার বার এরকম অপকর্ম করে সমাজে ধিকৃত হয়েছ্

 

এব্যাপারে ইখলাস হোসেন জানায়, আমি সমাজের লোকজনের কাছে সালিশের জন্য আবেদন করেছি।আমি ঘটনা জানার পর আমার স্ত্রীকে বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছ্। এরকম খারাপ মহিলা নিয়ে আমি সংসার করবো না।

 

গ্রামের মেম্বর মজিরুল ইসলাম জানায়, আমি ঘটনা শুনেছ্। ইখলাস সামাজিক বিচারের জন্য আজ বিকেলে বসতে বলেছেন। আমরা সালিস বৈঠকের মাধ্যমে সুষ্ঠু বিচার করার চেষ্টা করবো। কারন একটি ছোট বাচ্চা রয়েছে। তাই সবদিক বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে লম্পট ওসমানের উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হবে।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

আন্দুলবাড়ীয়ায় নব-নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান-মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এলাকাবাসীর ভালোবাসা ও ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত

আন্দুলবাড়ীয়া প্রতিনিধি: সদ্য অনুষ্ঠিত তৃতীয় ধাপে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচনত্তোর জীবননগর উপজেলা পরিষদের নব-নির্বাচিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *