সর্বশেষ
Home / দুর্ঘটনা / গাংনীতে বুরো বাংলাদেশ-এর ম্যানেজার ১০দিন যাবৎ নিখোঁজ না অপহৃত!

গাংনীতে বুরো বাংলাদেশ-এর ম্যানেজার ১০দিন যাবৎ নিখোঁজ না অপহৃত!

মেহেরপুর প্রতিনিধি: গাংনীতে বেসরকারী সংস্থা বুরো বাংলাদেশ-এর শাখা ব্যবস্থাপক সামসুল ইসলাম গত ১০ দিন যাবৎ নিখোঁজ না অপহৃত এনিয়ে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।১০ দিন অতিবাহিত হলেও শাখা ব্যবস্থাপক সামসুল ইসলামকে পরিকল্পিতভাবে অপহরণ করা হয়েছে নাকি হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে এটা রহস্যাবৃত। ঘটনা ধামাচাপা দিতে বুরো অফিসের পক্ষ থেকে নানা টালবাহানার আশ্রয় নেয়া হচ্ছে।ঘটনার কয়েকঘন্টা পরেই উদ্দেশ্যমূলকভাবে এরিয়া ম্যানেজার হযরতউল্লাহর পক্ষ থেকে গাংনী থানায় তড়িঘড়ি করে জিডি করার পায়তারা। অবশেষে ঘটনার ২ দিন পর অফিসের ১০-১৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে আত্মগোপন করেছে হযরতউল্লাহ বাদী হয়ে থানায় জিডি করেন। অন্যদিকে অসহায় নির্যাতিতা মহিলা সশরীরে থানায় গেলেও তার অভিযোগ গ্রহণ করা হয়নি।নিখোঁজ স্বামীর কোন সন্ধান বা নিজের উপর অমানবিক নির্যাতনের বিচার না পেয়ে নিরাশ হয়ে বাড়ী ফিরে আসে।

পরবর্তীতে গত তিনদিন আগে কোন মহলের আশ্বাস না পেয়ে দুই মেয়ে নিয়ে নওগায় বাবার বাড়ীতে ফিরে যেতে বাধ্য হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১০ দিন অতিবাহিত হলেও সামসুল ইসলামের কোন খোঁজ বা সন্ধান পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ সামসুল ইসলাম নওগা জেলার বাদলগাছি উপজেলার বিলসারা গ্রামের মৃত মোজাফ্ফর হোসেনের ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গাংনী পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র সরকারী কলেজ রোডে ভাড়াকৃত ভবনে বুরো বাংলাদেশ নামের এনজিও অফিস কার্যালয়। এই কার্যালয়ে ২০১৫ সালের ২ জুন তারিখে নওগাঁর সামসুল ইসলাম শাখা ব্যবস্থাপক (ম্যানেজার)হিসাবে যোগদান করেন।কিছুদিন আগে থেকেই গাংনী কলেজ পাড়ার একটি ভাড়া বাড়ীতে দুই শিশু কন্যা সন্তান-স্ত্রী নিয়ে বসবাস করছিলেন।চলতি মাসের ৯ তারিখ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অফিসের কাজ করতে বাসা থেকে অফিসে আসে ম্যানেজার সামসুল ইসলাম। স্বামী বাসায় না ফেরায় রাত ১২ টার সময় স্ত্রী মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে গভীর রাত হলে ঘুমে আচ্ছন্ন হলে আর খোঁজ নেয়া সম্ভব হয়।পরদিন শুক্রবার সকালে স্বামীর খোঁজ নিতে ছোট দুই মেয়ে রিয়া ও রিমাকে অফিসে পাঠায়।

বাবা কোথায় জিজ্ঞাসা করলে তাদের একটি কক্ষে আটকিয়ে রাখা হয়। দীর্ঘক্ষণ অতিবাহিত হলে মেয়েরা ফিরে না আসায় বাসা থেকে ম্যানেজার সামসুল ইসলামের স্ত্রী অফিসে গেলে তাকেও অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে নানাভাবে শারীরিক ও মানষিকভাবে নির্যাতন করে অফিসের বাথরুমে আটকিয়ে রাখা হয়। এসময় নির্যাতিতা মহিলা বাড়ীওয়ালাকে ফোন করলে তিনি কুষ্টিয়ায় থাকার কারণে যেতে পারেননি। পরে অন্য ভাড়াটিয়াকে ফোন করলে তৎক্ষণাৎ বুরো অফিসে গিয়ে শারীরিকভাবে নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে বাসায় নিয়ে আসে। এসময় ঘটনা প্রকাশ না করতে স্ত্রীকে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ঘটনার নায়ক এরিয়া ম্যানেজার হযরতউল্লাহ। তিনিও পাশাপাশি বাসায় শান্তনা দিতে আসেন এবং এনিয়ে কোথাও কোন অভিযোগ না জানাতে হুমকি দিয়ে আসেন। আরও জানা গেছে, টাকা পয়সার হিসাব নিকাশ নিয়ে অফিসের হিসাব রক্ষক মাহফুজুর রহমানের সাথে ম্যানেজার সামসুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়েছিল। এরই জের ধরে সামসুল ইসলামকে গুম করা হতে পারে বলে ধারণা করছে ম্যানেজারের পরিবার।

গাংনীতে অবস্থিত বুরো বাংলাদেশ অফিস সুত্রে জানা গেছে, ম্যানেজারসহ ৬ জন স্টাফ রয়েছে। এরা হলেন, চুয়াডাঙ্গা থেকে আগত এরিয়া ম্যানেজার হযরতউল্লাহ, রহিদুল ইসলাম (এসপিও), মাহফুজুর রহমান(পিএ), জুয়েল রানা (পিও) এবং অতিয়ার রহমান(পিও)। এই কয়জন ম্যানেজারের স্ত্রীকে অকথ্যভাষায় গালাগালি করে এবংশারীরিকভাবে নির্যাতনের ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলেন।

এব্যাপারে ম্যানেজার সামসুল ইসলামের বিরুদ্ধে আপনাদের অভিযোগ কি এমন প্রশ্নের জবাবে এরিয়া ম্যানেজার হযরতউল্লাহ বলেন, অফিসের হিসাব নিকাশ এবং দায়-দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়ে সামসুল ইসলাম আত্মগোপনে রয়েছে। টাকা পয়সা আত্মসাৎ করে নিয়ে গেছে কিনা এনিয়ে আমরা অডিট শুরু করেছি। অডিট শেষ হলেই টাকা আত্মসাতের কথা বলা যাবে।আপনারা কি কারণ দেখিয়ে থানায় জিডি করেছেন এমন প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান।

ঘটনার বিবরণ জানতে মোবাইল ফোনে সামসুল ইসলামের স্ত্রী জানান, আমার স্বামীকে আমি দিন খুঁজে পাচ্ছি না। আমার দুই মেয়ে সব সময় কান্নআকাটি করছে। আমি অসহায় , অফিস স্টাফদের হাতে শারীরিকভাবে নিযার্তিত হলেও বিচার না পেয়ে ফিরে এসেছি। আমার ধারণা ,আমার স্বামীকে এরিয়া ম্যানেজারের যোগসাজশে গভীররাতে হত্যা করে গুম করা হয়েছে। আমি আমার স্বামীকে ফিরে পেতে চাই। আমি এই ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার চাই।

এব্যাপারে গাংনী থানা ইনচার্জ হরেন্দ্রনাথ সরকার (পিপিএম) জানান, এব্যাপারে অফিসের পক্ষ থেকে ১০-১২ লাখ আত্মসাৎ করে আত্মগোপন করেছে মর্মে একটি অভিযোগ সংক্রান্ত সাধারণ ডায়েরি করেছে। ইতোমধ্যে আমার কানে এসেছে যে, নিখোঁজ সামসুল ইসলামের স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

সময় খুব কম, দেরি করা যাবে না: ড. কামাল

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত আইনজীবীদের মহাসমাবেশে যোগ দিয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছেন গণফোরামের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *