সর্বশেষ
Home / বিশেষ সংবাদ / গাংনীতে বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ অসহায় ভূমিহীনদের খাসজমির সীমানা পিলার দিয়ে জমি বুঝিয়ে দিলেন উপজেলা প্রশাসন

গাংনীতে বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ অসহায় ভূমিহীনদের খাসজমির সীমানা পিলার দিয়ে জমি বুঝিয়ে দিলেন উপজেলা প্রশাসন

মেহেরপুর প্রতিনিধিঃ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সাহারবাটি ইউনিয়নের হিজলবাড়িয়া মৌজায় সরকারি ১নং খাস খতিয়ানের জমি ধর্মচাকী গ্রামের অসহায় ভূমিহীনের মাঝে বন্দোবস্তকৃত কৃষি খাসজমি দখল বুজিয়ে দিয়ে গেলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি)।এখানে উল্লে¬খিত জমি খড়ের মাঠ বলে পরিচিত। যদিও এখন খড় (শন) এর বদলে এগুলি আবাদি ধানী জমি। বন্দোবস্তগ্রহীতাদের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা,হতদরিদ্রও অসহায় বিধাব মহিলা রয়েছেন।

 

দখল বুঝিয়ে দেয়ার জন্য বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের নির্দেশে গাংনী সহকারী কমিশনার ভূমি) দেলোয়ার হোসেন কাগজ পত্র দেখে নি¤œ তফশীল বর্ণিত সরকারী খাস জমি ভুমিদস্যুরা জোর করে দখল করতে না পারে তাহার জন্য ভূমিহীনদের খাসজমির সীমানা পিলার নিধারন করে দেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে ভূমিহীন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো:শুকুর আলী (গেজেট নম্বর-৮৫৯)পিতা মৃত ইয়াছিন আলী,গ্রাম-ধর্মচাকী,পো+উপজেলা-গাংনী,জেলা-মেহেরপুর আমিসহ একই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আ:কাদের পিতা মৃত নুরহোসেন,আ:রশীদ ও আ:লতিফ পিতা মৃত আসালত মোল্লাসহ ১২জন ভুমিহীন অসহায় আমাদের কোন জমি না থাকায় মেহেরপুর জেলা প্রশাসক মহদয় সরকারী নিয়ম অনুযায়ী হিজলবাড়ীয়া ৪১ নং মৌজায় আরএস সরকারী ১ নং খাস খতিয়ন ভোক্ত দাগ নং ৪৯৯৯/৫১৪০,৫১৩৭,৫১৪৭,৫১৪৯ ধর্মচাকী খড়ের মাঠের জমি আমাদের মাঝে বন্দোবস্ত দেন।যার বন্দোবস্ত জেলা কেস নং৪০১/১২/৯০-৯১,৩৯৩/ /২০০০-০১,৫৯/১২/১৯৮৯-৯০,৩৪১/১২/৯০-৯১।

 

জমি আমরা নিজ নিজ খাজনা প্রদান করে আসছি।উক্ত জমি সরকারী সার্ভেয়ার দিয়া মাপিয়া লাল ফ্লাগ পুতিয়া আমাদের মাঝে দখল দেন।সেই থেকে আমরা সবাই সম্পত্তি দখল ভোগ করছি।মেহেরপুর জেলা প্রশাসক মহদয় আমাদের নামে বন্দোবস্ত মুলে দলিল,স্কেসম্যাপ করে দেন।কিন্তু যাহা সিএস ১৩ হতে ১৫নং খতিয়ানের সাবেক ৩৯০৩ দাগের ২৪.৯২ একর জমি মেদিনীপুর জমিদারি কোম্পানী লিমিটেডের নামে প্রচালিত আছে।

 

পরবতী এসএ রের্কড নালিশী জমি এসএ ১ নং খাস খতিয়ানে পুর্ব পাকিস্তান প্রদেশ পক্ষে কালেক্টর কুষ্টিয়া নামে ১৪.৯২ একর জমি শ্রেনীর খড়ের মাঠ হিসাবে প্রচালিত ছিল।উক্ত খাস খতিয়ান ভুক্ত জমির মধ্যে হতে ১২/ /৬০-৬১ নং বন্দোবস্ত কেসে ৩৯০৩/১ হতে ৩৯০৩/১৭ নং বাটা দাগ সৃজন করে ৫.০০একর জমি জনৈক রেকাব উদ্দীনকে বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।বন্দোবস্ত গ্রহিতা রেকাব উদ্দীন বন্দোবস্ত প্রাপ্ত জমি বিভিন্ন লোকের নিকট বিভিন্ন দলিলে হস্তান্তর (বিক্রয়)করতঃ নি:স্বত্ত্ববান হন।

 

গ্রহিতা রেকাব উদ্দীন হস্তান্তর করিলে বর্তমান আরএস রের্কড ক্রেতাদের সঠিক নামে ৫.০০ একর জমি আরএস ৮৪৯নং খতিয়ানে সাবেক ৩৯০৩/১ বাটা দাগ হতে ৩৯০৩/১৭ নং বাটা দাগ হয়েছে এবং প্রাপ্ত ব্যক্তিদেও নামে রের্কড প্রচলিত রয়েছে।রেকাবের বিক্রয় করা দাগ গুলো হলো আরএস ৪৯৯৯/৫১০৩,৫১০৪,৫১০৫,৫১০৬,৫১০৭,৫১০৮,৫১০৯,৫১১০,৫১১১,৫১১২,৫১১৩,৫১১৪,৫১১৫,৫১১৬,৫১১৭ ও ৫১১৮ নং দাগের রুপান্তরীত হয়ে যথাযথ ভাবে ক্রয়কৃত মালিকদের নামে রের্কড প্রচলিত রয়েছে।

 

এক্ষনে সরকারী খাস জমির ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে অন্যায় লোভ ও লোভের বশবর্তী হইয়া জোরদার বহু জমাজমির মালিক একই গ্রামের সামসুল হুদা ওরফে লাল্টু,আঃরাজ্জাক পিতা-মৃত ফাকের আলী গাইন,মোঃরবিউল ইসলাম,মোঃশহিদুল ইসলাম,মোঃহাফিজুল ইসলাম পিতা-মৃত সিরাজুল ইসলাম,ইবনে সাইদ,মো:গোলাম মোস্তফা,মো:গোলাম মোর্তজা পিতা-মৃত আঃসাত্তার,মো:আবুল হাসান পিতা-মৃত ফাকের আলী গাইন,মোঃআকরাম খান পিতা-মৃত মোজ্জাফর সর্ব সাং ধর্মচাকী,পো+থানা-গাংনী,জেলা-মেহেরপুর ।

 

এরা চালাকি জালিয়াতি সাথে আদালতে সমস্ত সঠিক তথ্য জানা সত্ত্বেও দেওয়ানি আদালতে তথ্য গোপন করে সরকারী জমি গ্রাস করার হীন মানসে ভুমিহীনদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। উক্ত জমি হতে বেদখল করা জন্য লাঠি,বাড়ীতে থাকা বন্দুক আশে পাশে সন্ত্রাসীদের ভাড়া করে আমাদেরকে বেদখল করার চেষ্টা করছে।এমনকি তারা মিথ্যার মামলা,পুলিশের ভয় দেখিয়ে আমাদের হেনস্তা করার চেষ্টা করছে।

 

এব্যাপারে অসহায় মুক্তিযোদ্ধাসহ ১২জন ভূমিহীন পরিবার মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করলে নিতি ভূমিহীনদের জমি দখল ও জমির সীমানা পিলার নিধারন করার জন্য খুলনা বিভাগীয় কমিশনার কে নিদের্শ দিলে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যলায় থেকে ০৫,৪৪,০০০০.০০২.০৭.০১০.৫৭৯ স্বারকে মেহেরপুর জেলা প্রশাসক মহোদয়কে ব্যবস্থ গ্রহনের নির্দেশ প্রদান করেন।

 

কমিশনারের নির্দেশে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের রাজস্ব শাখার ০৫.৪৪.৫৭০০.০০৯.২৯.০৪৯.১৭.১০১৩ নং স্বারকে গাংনী সহকারি কমিশনার (ভূমি) দেলোয়ার হোসেনকে র্নিদেশ দিলে তিনি আজ বৃহস্পতিবার সকালে হিজলবাড়ী খড়ের মাঠের খাস জমির পিলার নিধারন করে দেন।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

জীবননগরে ভালোবাসায় সিক্ত হলেন যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল

জীবননগর প্রতিনিধিঃ জীবননগরে রাজনৈতিক, সুধী, সাংবাদিক ও স্থানীয় সাধারণ জনগনের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জীবননগর উপজেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *