সর্বশেষ
Home / কৃষি / গাংনীতে চাষ হচ্ছে ব্লাকূবেবি জাতের তরমুজ। লাভবান হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি 

গাংনীতে চাষ হচ্ছে ব্লাকূবেবি জাতের তরমুজ। লাভবান হওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি 

মেহেরপুর প্রতিনিধি:প্রবাশে ভালো যাচ্ছিল না মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার লিজনের। এ কারণে কৃষিসহ বিভিন্ন ব্যবসা সম্পর্কে জানতে ইন্টারনেটে ঘাঁটাঘাঁটি শুরু করেন। একসময় উপলব্ধি হয় দেশেই ভালো কিছু করতে পারবেন। তাই মাসছয়েক আগে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে স্থায়ীভাবে দেশে ফিরে আসেন। দেশে এসে প্রথমেই স্থানীয় দুজনকে সঙ্গী করে সাত বিঘা লিজসহ ১০ বিঘা জমিতে চাষাবাদ করার পরিকল্পনা করেন লিজন।

পার্শ্ববর্তী চুয়াডাঙ্গা জেলায় ব্ল্যাক বেবি নামে তাইওয়ানি তরমুজের কথা তার আগেই জানা ছিল। লিজ নেয়া জমিতে চাষ করেন এ তরমুজ। মাত্র ৬০-৬৫ দিনের মধ্যে ক্ষেতজুড়ে দেখা দেয় গাঢ় সবুজ তরমুজ। বিঘাপ্রতি দুই লাখ টাকা আয় করার আশা করছেন তিনি। যেখানে খরচ হয়েছে মাত্র ৫০-৬০ হাজার টাকা। গাংনী উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় ব্ল্যাক বেবি জাতের তরমুজ চাষ হলেও মেহেরপুর জেলায় এটিই প্রথম।

রমজান মাসকে লক্ষ্য করেই মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার গাঁড়াডোব পুড়াপাড়া মাঠে স্থানীয় আজাদ ও সাইফুলকে সঙ্গে নিয়ে তরমুজ চাষ করেছেন সাইদুর রহমান লিজন। গ্রীষ্মের গরমের মধ্যে রমজান শুরু হওয়ায় ইফতারিতে এখন তরমুজের চাহিদা রয়েছে প্রচুর। আর রমজানের ঠিক আগে তরমুজের মৌসুম শেষ হওয়ায় বাজারে স্বল্পমেয়াদি ব্ল্যাক বেবি তরমুজের ভালো দাম পাওয়া যাচ্ছে। সাইদুর রহমান লিজন বলেন, বিদেশে যখন ভালো সময় যাচ্ছিল না, তখনই ইন্টারনেটে ব্ল্যাক বেবি তরমুজের তথ্য পাই।

খুব অল্প সময়ে স্বল্প খরচে বেশি লাভ করা যায় এ তরমুজে। তাই দেরি না করে দেশে ফিরে এসেই জমি লিজ নিয়ে আবাদ শুরু করি। প্রথমবারেই ভালো লাভ হবে বলে আশা করছি। বিঘায় অন্তত ১৫০ মণ ফলন আসতে পারে। স্থানীয় বাজারে এখন ১ হাজার ২০০ থেকে ১ হাজার ৩০০ টাকা মণ বিক্রি হচ্ছে। ঢাকার কারওয়ান বাজারের এক ব্যবসায়ী দেড় হাজার টাকা করে মণ হিসেবে বিক্রয়ের জন্য চুক্তি হয়েছে।

তিনি আরো জানান, ব্ল্যাক বেবি তাইওয়ান থেকে আনা ছোট আকারের একটি তরমুজের জাত। গায়ের রঙ গাঢ় সবুজ, কিন্তু পাকলে ভেতরে টকটকে লাল হয়। তিন থেকে পাঁচ কেজি ওজনের তরমুজগুলো পাকলে সুমিষ্ট হয়। আর শীতকাল ছাড়া বছরের বাকি যেকোনো সময় এ তরমুজ চাষ করা যায়।

গাংনী উপজেলা কৃষি অফিসার মো: সাহাবুদ্দীন জানান, ব্ল্যাক বেবি জাতের তরমুজ এই প্রথম গাংনী উপজেলায় চাষ হচ্ছে। স্বল্প মেয়াদি এ তরমুজ চাষের ব্যাপারে খুব আগ্রহী। ফলে আগামী বছর থেকে এ তরমুজ মেহেরপুরের অন্যান্য উপজেলায় চাষ হবে বলে আশা করা যায়। এছাড়া তরমুজ চাষীদেও সার্বিক সহায়তা দিচ্ছে কৃষি অফিস।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

ঝিনাইদহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২জন নিহত আহত একজন

ঝিনাইদহ সংবাদদাতাঃ ঝিনাইদহে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু ঘটেছে। আহত হয়েছে একজন। সোমবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *