সর্বশেষ
Home / অপরাধ-দুর্নীতি / গাংনীতে কলেজের ভবন নির্মানে অনিয়মের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

গাংনীতে কলেজের ভবন নির্মানে অনিয়মের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

গাংনী অফিস:মেহেরপুরের গাংনীর বামুন্দী নিশিপুর স্কুল এন্ড কলেজের আইসিটি ভবন নির্মানে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগে কাজ বন্ধ করেছে দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার সময় ভবনের প্রথমতলার ছাদ ডালাইয়ের কাজ নিন্মমানের হওয়ায় তা বন্ধ করে দেয়া হয়। এদিকে ভবন নির্মানে অনিয়মের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা।

বামুন্দী স্কুল এন্ড কলেজর অধ্যক্ষ আব্দুল হাদি জানান,নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে ছাদ ডালাইয়ের কাজ করছিলো ঠিকাদারের লোকজন। একারনে তিনি সহ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও স্থানীয়রা কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। ইতো পূর্বে নিন্মমানের ১৫ টন রড আনা হয়েছিলো সেগুলো ফেরত পাঠানো হয়েছে। আজ ভবনের প্রথমতলা ডালাই দেয়া হবে তাকে জানানো হয়নী। এমনকি বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও সদস্যদের জানানো হয়নী।

ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার ফারুক হোসেন বলেন,বালি কিছুটা নিন্মমানের ছিলো। পরে ভালো বালি আনা হয়েছে। এছাড়া অধ্যক্ষ ও হবিবার রহমান হবি কিছু টাকা চেয়েছিলো না দেওয়ায় কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। ইতোপূর্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদত বার্ষিকী পালনের জন্য ১০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে তাদের। টাকা নেওয়ার বিষয় নিয়ে অধ্যক্ষ আব্দুল হাদি ও হবিবার রহমান হবির সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে ম্যানেজার ফারুক হোসেন।

টাকা চাওয়ার বিষয়টি অশ্বীকার করে বামুন্দী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হবিবার রহমান জানান,শিক্ষা প্রকৌশলী শাহানাজ খানম ও ঠিকাদারের ম্যানেজার ফারুক হোসেন তাদের অনিয়ম আড়াল করতেই টাকা চাওয়া হয়েছে বলে অপপ্রচার করা হচ্ছে। নিন্মমানের কাজ করার কারনে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বিধি মোতাবেক কাজ করলে সার্বিক সহায়তা করবে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ।

বামুন্দী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আব্দুস সাত্তার বলেন এত নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে কোথাও কাজ হয়েছে বলে মনে হয়না। তদন্ত করে ঠিকাদার ও দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি করেন তিনি।

বামুন্দী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোশাররফ হোসেন বলেন,নিয়ম অনুযায়ী কাজ না করলে বন্ধ করবে এটা স্বাভাবিক। তিনি আরো বলেন,বামুন্দী নিশিপুর স্কুল এন্ড কলেজ আমাদের এলাকার প্রতিষ্ঠান এই প্রতিষ্ঠানে আমাদের সন্তানরাই পড়ালেখা করবে। নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করলে ভবনটি দীর্ঘস্থায়ী হবেনা। কাজের মানের তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া দাবি করেন তিনি।

শিক্ষার্থীরা জানান,নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে ভবন নির্মান করা হলে যে কোন সময় ধসে পাড়ার আশংখা থাকবে। তাই শিক্ষার্থীদের নিরাপদে ক্লাস করতে হলে সরকারী বিধি মোতাবেক ভবন নির্মানের কাজ করতে হবে। ভবন নির্মানে অনিয়ম করা হয়েছে এর প্রতিবাদে মানববন্ধ করেছে শিক্ষার্থীরা।
উপসহকারী প্রকৌশলী শিক্ষা শাহানাজ খানম জানান,নিন্মমানের বালি দিয়ে ছাদ ডালাইয়ের কাজ চলছিলো একারনে বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়া বামুন্দী স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হবিবার রহমান তার সাথে অসৌজন্য মুলক আচরন করেন।

নিন্মমানের বালি দিয়ে ছাদ ডাইয়ের কাজ চলছে কেন ও অনিয়মের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নিয়েছেন জানতে চাইলে সাংবাদিকের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে উপসহকারী প্রকৌশলী শিক্ষা শাহানাজ খানম।
শ্রমিক সর্দার শোভাচান,হামিদুল ইসলাম ও ফরমান আলী জানান,বিভিন্ন দিকের বাধার কারনে ছাদ ডালাইয়ের কাজ অপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।

ঠিকাদারের অনুমতি পেলে আবার কাজ শুরু হবে। মেহেরপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন,তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য : ২ কোটি ১১ লক্ষ টাকা ব্যায়ে আইসিটি ভবন নির্মানের কার্যাদেশ পান কুষ্টিয়ার কমলাপুর এলাকার ঠিকাদার একরামুল হক।

প্রিন্ট

About এডমিন

Check Also

জীবননগরে ভালোবাসায় সিক্ত হলেন যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল

জীবননগর প্রতিনিধিঃ জীবননগরে রাজনৈতিক, সুধী, সাংবাদিক ও স্থানীয় সাধারণ জনগনের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন জীবননগর উপজেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *